১০ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ| ২৪শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ| ২৪শে জিলকদ, ১৪৪৩ হিজরি| সকাল ৭:০৫| বর্ষাকাল|
শিরোনাম
শ্রীপুরে জমির মালিকানা দ্বন্ধে ১’শ কলাগাছ কাটলো বড় ভাই মা দিবসে আল-হেরা হাসপাতালের বিনামুল্যে মেডিকেল ক্যাম্প মাওনা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ২০০৩ব্যাচের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত ময়মনসিংহে ইনফিনিটি মেগা মলের উদ্বোধন শ্রীপুরে শিক্ষকের উপর হামলা, প্রতিবাদে মানববন্ধন শ্রীপুরে শিক্ষকের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব নিলেন সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ শ্রীপুরে চাঁদাবাজির মামলায় ইউপি সদস্য গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে বিক্ষোভ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে গুণীজনদের সম্মাননা দিলো স্টুডেন্ট এন্ড হিউম্যান লিংক শ্রীপুরে জমকালো আয়োজনে যুগান্তরের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

বিমানের টয়লেটে মিলল সদ্যজাত শিশু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, জানুয়ারি ৩, ২০২২,
  • 38 বার

বিমানের ওয়াশরুমে সন্তান জন্ম দিয়ে তাকে টয়লেট বিনে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ২০ বছরের এক তরুণীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পূর্ব আফ্রিকার দেশ মরিশাসে ঘটেছে এই ঘটনা। উদ্ধার হওয়া শিশুটি ছেলে। বর্তমানে সে নিরাপদ ও সুস্থ আছে বলে মরিশাস পুলিশের বরাত দিয়ে সোমবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, গত ১ জানুয়ারি পার্শ্ববর্তী দেশ মাদাগাস্কার থেকে মরিশাসের স্যার সিউসাগুর রামগুলাম আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে এয়ার মরিশাসের একটি বিমান।

অবতরণের কিছুক্ষণের মধ্যে রুটিন কাস্টমস চেকের জন্য বিমানে ওঠেন বিমানবন্দরের কয়েকজন কর্মকর্তা। ওয়াশরুমে যখন এক কর্মকর্তা ঢোকেন, তখনই টয়লেট বিন থেকে কান্নার আওয়াজ পান তিনি। সঙ্গে সঙ্গে বিনের ঢাকনা খুলে রক্তমাখা টয়লেট পেপার এবং ওই শিশুকে দেখতে পান তিনি।

শিশুটির সন্ধান পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ওই ফ্লাইটের সব যাত্রীর বিমানবন্দর ত্যাগে নিষেধ করা হয়। সন্দেহভাজন তরুণী যাত্রীকে সদ্যজাত ওই শিশুটির মা হিসেবে আটকও করা হয়। কিন্তু প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ওই তরুণী বলেন, তিনি এই শিশুর মা নন।

তারপর তাৎক্ষণিকভাবে বিমানবন্দরে মেডিক্যাল পরীক্ষা করা হয় তার এবং সেখানে দেখা যায়, শিশুটির মা আসলে ওই তরুণীই। এতক্ষণ মিথ্যা বলছিলেন তিনি।

অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় সেই সময় তাকে আটক করা হয়। বিমানবন্দর পুলিশের কর্মকর্তারা বিবিসিকে জানিয়েছেন, আটকের পর তরুণী ও নবজাতককে হাসপাতালে পাঠানো হয়। মা ও শিশু উভয়ই শারীরিকভাবে সুস্থ আছে। হাসপাতালে ওই নারী পুলিশের নজরদারিতে আছেন।

মাদাগাস্কার থেকে দুই বছরের ওয়ার্ক পারমিট নিয়ে মরিশাসে এসেছিলেন ওই তরুণী। হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন বিমানবন্দর পুলিশের কর্মকর্তারা।

 

সূত্রঃ dhakapost.com

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ