১৮ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ| ২রা জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ| ২রা জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি| বিকাল ৩:৫৮| বর্ষাকাল|
শিরোনাম
শ্রীপুরে জমির মালিকানা দ্বন্ধে ১’শ কলাগাছ কাটলো বড় ভাই মা দিবসে আল-হেরা হাসপাতালের বিনামুল্যে মেডিকেল ক্যাম্প মাওনা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ২০০৩ব্যাচের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত ময়মনসিংহে ইনফিনিটি মেগা মলের উদ্বোধন শ্রীপুরে শিক্ষকের উপর হামলা, প্রতিবাদে মানববন্ধন শ্রীপুরে শিক্ষকের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব নিলেন সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ শ্রীপুরে চাঁদাবাজির মামলায় ইউপি সদস্য গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে বিক্ষোভ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে গুণীজনদের সম্মাননা দিলো স্টুডেন্ট এন্ড হিউম্যান লিংক শ্রীপুরে জমকালো আয়োজনে যুগান্তরের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

খুলনায় ৪৫ কেজি ইলিশ জব্দ

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : সোমবার, অক্টোবর ৪, ২০২১,
  • 55 বার

মা ইলিশ সংরক্ষণে ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞার প্রথম দিন অভিযান পরিচালনা করে খুলনায় ৪৫ কেজি ইলিশ ও ৪৮ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়েছে। জব্দকৃত কারেন্ট জালের মূল্য প্রায় ৯ লাখ ৬০ হাজার টাকা। একই সঙ্গে পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা ও ২১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার (০৪ অক্টোবর) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত খুলনার বিভিন্ন মাছের অবতরণ কেন্দ্র, মাছঘাট, আড়ৎ ও বাজারে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। খুলনা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা জয়দেব কুমার পাল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি ঢাকা পোস্টকে বলেন, খুলনা জেলার তিনটি নদী, ১৫টি অবতরণ কেন্দ্র, ৩৮টি মাছ ঘাট, ৫৫টি আড়ৎ ও ৭৮টি মাছ বাজারে অভিযান চালিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। এর মধ্যে খুলনা মহানগরী ও ফুলতলা উপজেলায় দুটি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন খুলনা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তকী ফয়সাল তালুকদার এবং ফুলতলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন। এছাড়া রূপসা, দিঘলিয়া ও তেরখাদা উপজেলাসহ জেলায় ১৩টি অভিযান পরিচালনা করা হয়।

জয়দেব কুমার পাল জানান, অভিযান পরিচালনাকালে খুলনার আঠারো বেকী, আতরাই ও রূপসা নদী থেকে ৪৫ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়। এর মধ্যে তেরখাদায় ১০ কেজি ইলিশ, দিঘলিয়ায় ১৫ কেজি ইলিশ ও রূপসা থেকে ২০ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়। অভিযানে প্রায় ৯ লাখ ৬০ হাজার টাকা মূল্যের ৪৮ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়। এছাড়া ফুলতলা উপজেলায় অভিযান চালিয়ে পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা ও ২১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

দিঘলিয়ার সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম ঢাকা পোস্টকে বলেন, জব্দকৃত মাছ এতিমখানায় দেওয়া হয়েছে এবং কারেন্ট জাল পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

অভিযানে জেলা মৎস্য কর্মকর্তা জয়দেব পাল, ফুলতলা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা রনজিত কুমার, তেরখাদা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা প্রদীপ কুমার দাস, দিঘলিয়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম ও রূপসা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. লিয়াকত আলীসহ উপজেলা প্রশাসন, মৎস্য কর্মকর্তা ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, সোমবার (০৪ অক্টোবর) থেকে আগামী ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত মোট ২২ দিন দেশব্যাপী ইলিশ আহরণ, পরিবহন, বাজারজাতকরণ, ক্রয়-বিক্রয়, মজুদ ও বিনিময় নিষিদ্ধ করেছে সরকার। এই ২২ দিন সারাদেশে ইলিশ আহরণ, পরিবহন, বাজারজাতকরণ, ক্রয়-বিক্রয়, মজুদ ও বিনিময় আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

মৎস্য সুরক্ষা ও সংরক্ষণ আইনে নিষেধাজ্ঞা অমান্যকারীকে কমপক্ষে ১ বছর থেকে সর্বোচ্চ ২ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড অথবা ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করার বিধান রয়েছে।

সূত্র: ঢাকাপোষ্ট.কম

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ