রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৫১ অপরাহ্ন
সবশেষ :
শ্রীপুরে আমার বাড়ি আমার খামার প্রকল্পের টাকা বিতরণ শ্রীপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসারের বিদায় সংবর্ধনা শ্রীপুর পৌরসভাকে আধুনিক পৌরসভায় রূপান্তর করতে চান সফল ছাত্র রাজনীতিক রবিন অসুস্থ সাংবাদিকের পাশে দাঁড়ালো শ্রীপুর সাংবাদিক কল্যাণ সংস্থা শ্রীপুরে দাবিকৃত চাঁদা না পেয়ে ব্যবসায়ীকে প্রাণনাশের হুমকি বিআরটিএ-এর সহকারি রাজস্ব কর্মকর্তার গ্রাহক হয়রানি-দুর্ব্যবহারের অভিযোগ শ্রীপুরে মুক্তিযোদ্ধাকে মারধর, জমি দখলের ঘটনায় মামলা বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন ও সামাজিক দায়বদ্ধতা মাথায় রেখে সাংবাদিকদের কাজ করতে হবে সাংবাদিকদের কল্যাণে কাজ করবে শ্রীপুর সাংবাদিক কল্যাণ সংস্থা শ্রীপুরে সীমানা প্রাচীর ভাঙচুর করে জমি দখলে নেয়ার হুমকি

পিওনকে বরখাস্ত করার জেরে কর্মকর্তার শিশু অপহরণ, গ্রেপ্তার-১

গাজীপুর প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২৪ বার পঠিত

গাজীপুরে অফিসের পিওনকে বরখাস্তের জেরে বৃহস্পতিবার এক কর্মকর্তার শিশু অপরণের ঘটনা ঘটেছে। ছয় ঘন্টা পর বৃহস্পতিবার রাতে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার চন্দ্রা এলাকায় অভিযান চালিয়ে অপহরণকারীকে গ্রেপ্তার ও ভিক্টিমকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব-১-এর সদস্যরা। গ্রেপ্তার মো. মোস্তাফিজুর রহমান (১৮), শেরপুর সদরের ডুবারচর এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে এবং ভিক্টিমের বাবার অফিসের পিওন।

শুক্রবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে গাজীপুরস্থ পোড়াবাড়ী ক্যাম্পে কর্মরত র‌্যাব-১ এর স্পেশালাইজড কোম্পানীর কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল-মামুন জানান, অপহরণকারী মোস্তাফিজুর গাজীপুর মহানগরীর ভাওয়াল বদলে আলম সরকারী কলেজের পাশে অবস্থিত এলএফ সিকিউরিটি নামক প্রতিষ্ঠানে পিয়ন পদে চাকুরী করতেন এবং ভিক্টিমের বাবা ওই অফিসেরই রিক্রুটিং অফিসার পদে চাকুরি করেন। তাদের উভয় পরিবারের লোকজন গাজীপুর মহাগরের আউটপাড়া এলাকায় শওকত মিয়ার বাড়িতে ভাড়া থাকেন।

 

অপহরণকারী প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে র‌্যাবের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন,  চার দিন আগে ওই প্রতিষ্ঠান থেকে চুরির দায়ে ভিকটিমের বাবা মোস্তাফিজুরকে চাকুরী হতে বরখাস্ত করেন। এর জেরেই ক্ষিপ্ত হয়ে একটি ধারালো চাকু কিনেন মোস্তাফিজ। ১৭ সেপ্টেম্বর সকাল সোয়া ১১ টার সময় বাসার নিচে খেলা করার সময় মোস্তাফিজ সুযোগ বুঝে নিশাতকে অপহণ করে ঢাকার মহাখালীতে নিয়ে যায়। মহাখালী গিয়ে ভিকটিমের বাবাকে মোবাইল ফোনে নিশাতকে অপহরণের কথা জানান এবং তার কাছে তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। মুক্তিপণের টাকা না দিলে তার ছেলেকে হত্যা করে লাশ গুম করা হবে বলে জানানো হয় ফোনে।

ছেলে অপহরণের খবর পেয়ে ওইদিন দুপুর আড়াইটার দিকে বাসন থানায় একটি অভিযোগ করেন বকুল মিয়া এবং র‌্যাব-১-এর কাছে অপহৃত ভিকটিমকে উদ্ধারের জন্য আইনগত সহায়তা কামনা করেন তিনি। এরপর র‌্যাব ছায়া তদন্ত শুরু করেন এবং গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করেন।

পরে মোস্তাফিজের কথামত ভিক্টিমের বাবা মুক্তিপনের টাকা দেয়ার কথা বলে রাত সাড়ে ৮টার সময় গাজীপুর জেলার চন্দ্রা এলাকায় অবস্থান নেন। এসময় কৌশলে অভিযান চালিয়ে এবং একটি সুইচ গিয়ারসহ অপহরণকারীকে আটক এবং তার হেফাজত থেকে ভিকটিম নিশাত বাবুকে জীবিত উদ্ধার করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020 Raytahost
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: রায়তা-হোস্ট
banglatimes_y6e209